শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

অর্থ আত্মসাৎ, জালিয়াতি সহ নানা অনিয়মের মাস্টার মাইন্ড বকুল বিশ্বাস জনতার হাতে আটক।

Sanu Ahmed
  • Update Time : শনিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২৩
  • ২৩৪ Time View

মোঃ আব্দুর রাজ্জাক আল রোহান

সুুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ
বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে অর্থ আত্মসাৎ সহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে বিভিন্ন জালিয়াতির মাস্টার মাইন্ড সুুন্দরগঞ্জ উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাস কে আটক করেন সাধারণ জনতা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমিহীন ও দারিদ্রমুক্ত দেশ গডার প্রত্যয় সরকার বিনামূল্যে জমিসহ ঘর ও জমি আছে ঘর নাই তাদের কে আশ্রায়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় জমিসহ ঘর উপহার দিচ্ছেন। উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি আতোয়ার রহমান মাস্টার ও সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাস যোগসাজশে দলীয়ভাবে ঘর দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি জসিম উদ্দিনের প্রলুব্ধ করে সোনারায় ইউনিয়নের অসহায় ও দিনমজুর ১৩ জন পরিবারের কাছ ৩ লক্ষ ৯১ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বকুল বিশ্বাস। এছাড়া উপজেলা বেলকা ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি লাইলী বেগম,কাপাসিয়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি আলম মিয়া,সর্বানন্দ ইউনিয়ন সভাপতি কাজিম মাস্টার সহ দলীয় আরও কয়েক জন অসহায় নেতাকর্মীর মাধ্যমে শিশু ভাতা, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্দী ভাতা ও ভূমিহীনদের জমিসহ ঘর দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে অর্থ গ্রহন করে উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাস।

উপজেলার সোনারায় ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন জানান, বকুল বিশ্বাস বিভিন্ন সময় ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের তার বাসায় ডেকে বিভিন্ন প্রকল্প দেওয়ার কথা বলে আমাদের অনেকের কাছে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। বকুল বিশ্বাস আমাকে আমার ইউনিয়নের ১৫ টি ঘর দেওয়ার কথা বলে ১৩ জনের নিকট থেকে ৩ লক্ষ ৯১ হাজার টাকা নিয়ে ২ বছর থেকে বিভিন্ন তাল বাহানা দেখাচ্ছেন। আমি তাকে অনেক বার যোগাযোগের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হই। আজ তাকে পৌরশহরে দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে আটক করি।

উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি অর্থ গ্রহনের সত্যতা শিকার করেন।

এবিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম সরকার লেবু জানান, উপজেলা কৃষক লীগের কমিটি গঠনের পর থেকে সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ পেয়েছি। আমরা উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিকে বিষয় গুলো অবগত করছে। আশা করছি দ্রুত একটা সমাধান আসবে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে। তার বিরুদ্ধে উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য যে, এই বকুল বিশ্বাস উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই নারী কেলেঙ্কারি, একটি দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি হওয়ার করণে পদ বাণিজ্য, বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে অর্থ আত্মসাৎ সহ দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকান্ডে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102