সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৭:১০ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে মডেল মসজিদের সম্মুখে বাসস্ট্যান্ড স্থাপন না করতে ইউএনও বরাবর এলাকাবাসীর আবেদন

Sanu Ahmed
  • Update Time : রবিবার, ২১ মে, ২০২৩
  • ১২৭ Time View

 

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি:

 

নিরাপদ ও যানজটমুক্ত সড়ক বাস্তবায়নের

জন্য দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার দাবিতে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা সদরের প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত মডেল মসজিদের সম্মুখে বাসস্ট্যান্ড স্থাপন না করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন এলাকাবাসী।

সহকর্মী আমিনুর রহমান জিলুর তথ্য ও চিত্রে বিস্তারিত দেখুন রিপোর্টে।

 

গত ১৮ই মে বৃহস্পতিবার দুপুরে জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাফরোজ ইসলাম মুন্না, ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাবেক প্যানেল মেয়র শফিকুল হক শফিক, ৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সোহেল আহমেদ, ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কৃষ্ণ চন্দ্র চন্দ, ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কামাল হোসেন, ৪,৫, ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর বাহারজান বিবি, ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শাহীন আহমেদ, ৯ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছমির উদ্দিন সহ এলাকার বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সাক্ষরিত একটি আবেদন পত্র ইউ এন ও বরাবর পেশ করেন এলাকাবাসী।

 

আবেদন পত্রে তারা উল্লেখ করেন জগন্নাথপুর থেকে সিলেটগামী ও সিলেট থেকে জগন্নাথপুরে আগত বাস সমূহের জন্য ব্যবহৃত বর্তমান বাসস্ট্যন্ডটির স্থান পরিবর্তন করে মডেল মসজিদের সম্মুখে স্থানান্তর করার উদ্যোগ নিয়েছে একটি কুচক্রী মহল। বাসস্ট্যান্ডটির স্থান পরিবর্তন করে মডেল মসজিদের সম্মুখে স্থানান্তর হলে পৌর শহরের অভ্যন্তরে যানজট বৃদ্ধি সহ নানাবিধ সমস্যার সম্মুখীন হবেন মসজিদের মুসল্লি, স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী, পথচারী, পৌরবাসী সহ উপজেলাবাসীগণ।

অন্যদিকে জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, স্বরূপ চন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, নার্সারী স্কুল ও হাইস্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতে মারাত্মক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হবে। যার ফলে যেকোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা।

তারা বলেন শহরের ভেতরে বাসস্ট্যান্ড স্থাপন নাকরে পুর্বদিকে শহর থেকে কিছুটা দূরে বাসস্ট্যান্ড স্থাপন করলে সবার জন্য ভালো হয়। এতে করে একদিকে যেমন যানজট কমবে অন্যদিকে স্কুলগামী ছাত্র ছাত্রী নিরাপদে বাড়ী থেকে স্কুল, স্কুল থেকে বাড়ী ফিরতে পারবে।

 

যারা নিজেদের স্বার্থের জন্য শহরের অভ্যন্তরে বাসস্ট্যন্ড স্থানান্তর কাজের উদ্যোগ নিয়েছেন সরেজমিনে তদন্ত করে অবিলম্বে তা বন্ধ করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার প্রতি আহবান জানান তারা।

 

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সাজেদুল ইসলাম বলেন- আবেদনটি পেয়েছি, তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102