শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৯:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নবীগঞ্জে বন্যাদুর্গতদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ নবীগঞ্জের রইছগঞ্জ বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড! ইলেকট্রনিক দোকান সহ ৩টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুঁড়ে ছাঁই!ব্যবসায়ীর মাথায় হাত! সাড়ে ১৭লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি৷ কটিয়াদিতে অরক্ষিত পেট্রোল ও ডিজেলের দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে একজন আহত ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি অনুচ্ছেদ : আত্নহত্যা কবিতা – বাদলা দিনে মধ্যনগরে বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন এমপি রনজিৎ চন্দ্র সরকার সুনামগঞ্জে মানবিক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে বন্যার্তদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ বন্যার্তদের পাশে গোয়াইনঘাট উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাব বিশ্বম্ভরপুরে বন্যার্তদের জন্য সরকারের সুদৃষ্টি আছে , আমরা জনপ্রতিনিধিরা আছি, ত্রাণের কোনো অভাব নেই- ড. মোহাম্মদ সাদিক এমপি খাজাঞ্চি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আরশ আলীর পরিবারের পক্ষ থেকে বন্যার্তদের মাঝে চিড়া ও গুড় বিতরণ

Poem:Saying farewell to the fatherland. Poet:Farzaneh Dorri , Country: Denmark,

Sanu Ahmed
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৪ জুন, ২০২৪
  • ১৩১ Time View

English to Bengali Translated by: Priyanka Neogi,
Country: Pundibari,India
_________________________
Upon life’s hardest rocks
my memories had washed,
and I stood many things apart
for getting rid of the yoke of my hands and feets.

I had walked away,
with a wounded soul
I had crawled out of my hole
for building up a new home.

I started my path
far from my fatherland,
but then I learned that my decision
had abandoned me to the unknown.
How futile and grim
was my new world of despair!
I discovered that my fate
was at risk of defeat.

Somewhere within my mind
from a place I thought I lost the light
came the echo of words to me:
“Knowledg is always in your moments;
They are always with you, anywhere you go
the sounds of words make songs for you.
A voice never dies.”

A wave of fury inside me blurred
but I knew it was grief.
I knew that my freedom
came with a price that I owed my fatherland,
that I abandoned with love.

Saying goodbye to your own country is not just a word;
that’s a thought, to say goodbye to your own roots.
It goes unheard,
but it echoes in your ears as long as you live.

_________________

কবিতা: পিতৃভূমিকে বিদায় জানিয়ে।
কবি: ফারজানেহ ডরি,
দেশ: ডেনমার্ক,
ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ করেছেন: প্রিয়াংকা নিয়োগী,
দেশ:পুন্ডিবাড়ী,ভারত
___________________________
জীবনের কঠিনতম পাথরের উপর
আমার স্মৃতি ধুয়ে গেছে,
এবং আমি অনেক কিছু আলাদা করে দাঁড়িয়েছিলাম
আমার হাত ও পায়ের জোয়াল থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য।

আমি চলে গিয়েছিলাম,
একটি আহত আত্মার সাথে
আমি হামাগুড়ির দিয়ে বেড়িয়েছিলাম
আমার গর্ত থেকে
একটি নতুন বাড়ি তৈরির জন্য।

আমি আমার পথ চলা শুরু করলাম
আমার জন্মভূমি থেকে অনেক দূরে,
কিন্তু তারপর আমি শিখেছি যে আমার সিদ্ধান্ত
আমাকে অজানায় ত্যাগ করেছিল।
কত নিরর্থক এবং ভয়াবহ
আমার হতাশার নতুন পৃথিবী ছিল!
আমি আমার ভাগ্য আবিষ্কার করলাম
পরাজয়ের ঝুঁকি ছিল।

আমার মনের মধ্যে কোথাও
একটা জায়গা থেকে আমি ভেবেছিলাম আমি আলো হারিয়ে ফেলেছি
আমার কাছে শব্দের প্রতিধ্বনি এসেছিল:
“জ্ঞান সবসময় তোমার মুহূর্তর মধ্যে আছে;
তারা সবসময় তোমার সাথে থাকে,তুমি যেখানেই যাও
শব্দের শব্দ তোমার জন্য গান তৈরি করে।
একটি কণ্ঠ কখনো মরে না।”

আমার ভিতরে একটা ক্ষোভের ঢেউ ঝাপসা হয়ে গেল
কিন্তু আমি জানতাম এটা দুঃখ ছিল।
আমি জানতাম আমার স্বাধীনতা
আমি আমার জন্মভূমির ঋণী মূল্য নিয়ে এসেছি,
যা আমি ভালবাসার সাথে পরিত্যাগ করেছি।

নিজের দেশকে বিদায় জানানো শুধু একটি শব্দ নয়;
এটি একটি চিন্তা, তোমার নিজের শিকড়কে বিদায় জানানো।
এটা শোনা যায় না,
কিন্তু তুমি যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন এটি তোমার কানে প্রতিধ্বনিত হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023 Coder Boss
Design & Develop BY Coder Boss
themesba-lates1749691102